সংলাপ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন স্থগিত

0
13

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্ক: অনিবার্য কারণবশত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগামীকাল বৃহস্পতিবারের সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে। পরিবর্তিত তারিখ পরে জানিয়ে দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে আজ বুধবার এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপের ফলাফল নিয়ে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করার কথা ছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। তবে কেন প্রধানমন্ত্রীর সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে, তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

বুধবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিতীয় দফায় গণভবনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের সঙ্গে সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। অপরদিকে বিকেলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন জানায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল কাল বৃহস্পতিবার ঘোষণা করবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা।

তবে বিরোধীদলীয় জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার তারিখ পেছানোর দাবি জানিয়ে আসছে। ঐক্যফ্রন্ট গত সোমবার ইসির সঙ্গে বৈঠক করে তফসিল পেছানোর দাবি করে। কারণ হিসেবে তারা বলছে, সরকারের সঙ্গে সংলাপ চলছে। এর ফলাফল দেখে তফসিল ঘোষণা করা যেতে পারে।

ঐক্যফ্রন্ট বলেছে, সমঝোতার আগে তফসিল ঘোষণা করা হলে তারা নির্বাচন কমিশন অভিমুখে পদযাত্রা করবে।

দ্বিতীয় দফায় সংলাপ শেষে বুধবার বিকেলে রাজধানীর বেইলি রোডে ড. কামাল হোসেনের বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সরকারের কাছে তাঁরা আরও আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন। আলোচনা অব্যাহত থাকবে। আলোচনা ফলপ্রসূ কি না, সেটা জনগণই ঠিক করবে।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। আইনিভাবে তা হতে পারে বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ‘শান্তিপূর্ণ অবস্থা হোক, সেটাই আমরা চাচ্ছি।’

বৃহস্পতিবার তফসিল ঘোষণার তারিখ পেছানোর কথা বলেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেন, ‘সংবিধানসম্মতভাবে আমরা তফসিল ঘোষণার তারিখ পেছানোর কথা বলেছি।’

১ নভেম্বর ১৪ দল ও ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে সংলাপের মাধ্যমে এই সংলাপ শুরু হয়। বুধবার গণভবনে এই দুই জোটের মধ্যে দ্বিতীয় দফা সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়।

সাবেক রাষ্ট্রপতি ড. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বে যুক্তফ্রন্টের সঙ্গে ২ নভেম্বর, ১৪ দলীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে ৪ নভেম্বর এবং এইচ এম এরশাদের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটের সংলাপ ৫ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। ৬ নভেম্বর ১২টি উল্লেখযোগ্য ইসলামিক দল ও ৮টি বাম দলীয় মোর্চা বাম গণতান্ত্রিক জোটের সঙ্গে ১৪ দলীয় জোটের সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার রাতে ১৪ দলীয় জোট ও ২৫টি রাজনৈতিক দলের মধ্যে অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার গণভবনে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, ৭ নভেম্বরের পর আর কোনো সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে না। রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শেষে ৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় গণভবনে সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

LEAVE A REPLY