কবি মাহমুদা শিরীন এর কবিতা <<বন্দিনী >> ফাল্গুন দুহিতা রুমকি আনোয়ারের অনুমতিক্রমে গত তিন মাস থেকে ফাল্গুনের কৃষ্ণ চূড়ার সর্বসেরা হিসাবে প্রকাশিত হল ।

267
কবি মাহমুদা শিরীন

<<বন্দিনী >>

—————— মাহমুদা শিরীন

এই যান্ত্রিক শহরে বাস করে করে
আজ আমার অনুভূতি ভোঁতা হয়ে গেছে
ছটফট করি খাঁচায় বন্দী পাখির মতো ।
মাঝে মাঝে ইচ্ছে করে পথ ভুল করে
যাই হারিয়ে সবুজ কোনো বনে ।
কেমন করে ভোর হয় পাখির কলগানে।
স্নিগ্ধ ভোরের শিশির ঘাসের উপর
জলকণা দেখতে কেমন লাগে ।
শেফালি আর বকুল ফুলের মুধুর গন্ধ
বুক ভরে নিঃশ্বাস নিতে ইচ্ছে করে ।
ধানপাকা মাঠ শালিকের ঝাঁক দেখতে কেমন লাগে
জ্যোৎস্নাময় সেই পুকুর ঘাট দেখতে কেমন লাগে ।
ভাবতে ভাবতে আমার দু’চোখ জলে ভিজে যায়
কল্পনা শুধু একান্তে কল্পনায় থেকে যায় ।
নদী নাকি মানুষের হৃদয় , সুখ দুঃখ
নদী নাকি বদলায় মুহূর্তে মুহূর্তে
কাছে থেকে বসে সৌভাগ্য হয়নি দেখার
তাইতো নদী নিয়েও লিখা হয়না কবিতা ।
অন্ধ কারাপ্রাচীরে আমি বন্দিনী আজ
আমার দু ‘হাতে পায়ে শিকল পরা
তাই দু’চোখ বন্ধ করে অন্ধকারে
আলোকশিখা দেখার ব্যর্থ চেষ্টা।
এই যান্ত্রিক শহরে যায় আমার কেটে
নিস্প্রান সন্ধ্যা আর নিদ্রাহীন নিশী
আমার আজন্ম দুঃখ কেবল দুঃখই থেকে যাবে
হে বন্ধুরা — তোমারা ও আশা করো না
আমার কাছে নতুন কোনো আনন্দ উপহার ।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY