তারুণ্যের কবি নীলিমা শামীম লিখেছেন ভিন্ন ধারার জীবনমুখী কবিতা ”ছুঁয়ো না লজ্জাবতী ”

182
তারুণ্যের কবি নীলিমা শামীম

ছুঁয়ো না লজ্জাবতী

                                 নীলিমা শামীম

উপমা–
অবিরাম ঝরছিল পাঁপড়ি জলোচ্ছ্বাসের মত
আমার সারা অঙ্গ গ্রাস করলো গোলাপ
ব্যথার কাঁন্না বাসরের বর্ষায় পরিপূর্ণ
চোখ খুলতেই দ্বীপ তোমার আলিঙ্গন!

দ্বীপ—
লজ্জিত আঁখি তুলে অভিভূত ও বিহ্বলিত
এই মেয়ে আমি, প্লিজ! নূপুর তোমার তরে
চারিপাশ মখমলের পাঁপড়িতে আবৃতদেহ
শুধুই আঁখি দুটি বিচ্ছিন্ন সেই পুস্প স্তবকে!
আবেগ আকর্ষণ ভরে দেখেছিনু তোমারে
অন্ধ নয়নে করেছিনু প্রসংশা নেশার মত্ততায়
বিমুগ্ধ কথনে বেসেছিনু ভালো অদেখায়
তোমার প্রতিটা স্পন্দন করে বিস্মিত আমায়!

ক্ষণিক মন ভরে দেখলাম ছুঁয়ে তোমায়
বদলাও নি তো একটুও? রয়েছো নীলিমায়
কাজল কালো চোখ আর গোলাপী অধর
সব কিছুই যেন প্রেমিকার মতই সুন্দর।
কালো -সাদার মিলনমেলায়
দুই নয়নে বেশ লাগছে গো তোমায়!!

যন্ত্রণার সরোবরে থাকি সারাক্ষণ এই আশায়
কিছুই চাইবোনা নিরুপমা পেলেগো তোমায়
শুধু একরত্তি ভালোবাসা চাই তোমার প্রতিক্ষণে
থেকো তুমি বাকি জীবন দ্বীপের ক্ষুদ্র এই মনে!!

উপমা—
লজ্জাতুর নয়নে আমার খুব প্রিয় একজন তুমি
দ্বীপ ভালোবাসার বন্ধু হয়ে থেকো তুমি
হারাতে চাইনা তোমাকে পৃথিবীতে
ঝড় ঝঞ্জা মিথ্যা কোনো অজুহাতে!

দ্বীপ —
যেখানে থাকো আমার অন্তরেই রইবে
আঁকা আছে মুখচ্ছবিখানা কথা কইবে
তোমা বিনে আর কি কাটে প্রেমিকের রাতি
তুমি বিনোদিনী তুমিই প্রেমসাগরে আশ্রয়
এই প্রেমযমুনা দেব পাড়ি থাকো যদি সাথে।!!

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY