গাজীপুরে বেতনের দাবিতে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

184

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্কঃ বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে আজ রোববার গাজীপুরে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন পোশাক কারখানার শ্রমিকেরা। গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সাইনবোর্ড এলাকার নিউওয়ে ফ্যাশন লিমিটেড, ভোগড়া বাইপাস এলাকার ইস্ট ওয়েস্ট গ্রুপ ও জিরানী এলাকার ডরিন ফ্যাশন পোশাক কারখানার শ্রমিকেরা এ বিক্ষোভ করেন।

নিউওয়ে ফ্যাশনের শ্রমিকেরা জানান, তাঁরা ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসের বেতন-ভাতা পাননি। কারখানা কর্তৃপক্ষ ঘোরাচ্ছে। এখন তাঁদের ঘরে খাবার নেই। বাড়িভাড়া ও দোকান বাকি পড়ে আছে। পাওনাদারদের জন্য বাসা থেকে বের হতে পারছেন না তাঁরা। এর মধ্যে গাজীপুর লকডাউন করা হয়েছে। এখন তাঁদের না খেয়ে মরার উপক্রম।

ওই কারখানার শ্রমিক আরাফাত হোসেন বলেন, ‘সরকার যে ত্রাণ সহায়তা দিচ্ছে, তা গাজীপুরের যাঁরা ভোটার তাঁরা পাচ্ছেন। তাই এখন বেতন না পেলে সন্তানদের নিয়ে না খেয়ে মরতে হবে। যানবাহন বন্ধ থাকায় সন্তানদের গ্রামের বাড়িতেও রেখে আসতে পারছি না।’

অবরোধের কারণে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। এক ঘণ্টা পর মালিকপক্ষ ১৬ এপ্রিল বেতন পরিশোধের ঘোষণা দিলে শ্রমিকেরা মহাসড়ক অবরোধ তুলে নেন। পরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

অপর দিকে গাজীপুরের জিরানী এলাকায় ডরিন ফ্যাশন লিমিটেড কারখানার শ্রমিকেরা মার্চ মাসের বেতনের দাবিতে সকাল থেকে বিক্ষোভ শুরু করেন। একপর্যায়ে শ্রমিকেরা কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা-নবীনগর সড়কে অবস্থান নেন। সড়কটি প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী অবরোধ করে রাখা হয়।

ডরিন ফ্যাশনের শ্রমিক সাইফুল ইসলাম বলেন, আশপাশের প্রায় সব কারখানা বেতন পরিশোধ করে দিলেও এখন পর্যন্ত তাঁদের বেতন দেওয়া হচ্ছে না। বেতন না পেয়ে তাঁদের দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হচ্ছে।

খবর পেয়ে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কাশিমপুর থানা-পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে শ্রমিকদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়। কাশিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আকবর আলী খান জানান, শ্রমিকদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া কারখানা কর্তৃপক্ষকে দ্রুত বেতন পরিশোধ করার জন্য বলা হয়েছে।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY