ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘সন্ত্রাসবিরোধী ছাত্রঐক্যের’ আত্মপ্রকাশ

103

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্কঃ কোটা সংস্কার আন্দোলনকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠা বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদসহ ১২ সংগঠনের সমন্বয়ে সন্ত্রাসবিরোধী ছাত্র ঐক্য গঠিত হয়েছে।

শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যানটিনে বিকেল ৩টায় এক সংবাদ সম্মেলনে ১২ ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মীরা এ ঘোষণা দেন।

সংগঠনগুলো হলো:

১। বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ

২। বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন

৩। সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট

৪। বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন

৫। সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট

৬। বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রী

৭। বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন

৮। বিপ্লবী ছাত্র যুব আন্দোলন

৯। বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ

১০। নাগরিক ছাত্র ঐক্য

১১। স্বতন্ত্র জোট

১২। ছাত্র গণমঞ্চ

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হুসেন।

লিখিত বক্তব্যে তারা ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরসহ সহযোগীদের ওপর হামলায় দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান। তারা সন্ত্রাসমুক্ত ক্যাম্পাস গড়ে তুলতে প্রশাসনের কাছে দাবি জানান।

লিখিত বক্তব্যে তারা চার দফা দাবি উত্থাপন করেন।

দাবিগুলো হলো ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরসহ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকারীদের বহিষ্কার ও বিচার করতে হবে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যলয়ের প্রক্টর গোলাম রাব্বানিকে অপসারণ করতে হবে, হামলার আহতদের চিকিৎসার ব্যায়ভার প্রশাসনকে নিতে হবে, ক্যাম্পাসে গণতান্ত্রিক পরিবেশ এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে এবং হল থেকে দখলদারিত্ব, গণরুম, গেস্টরুম নির্যাতন বন্ধ করতে হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নতুন জোটের এক নেতা বলেন, ‘ঐতিহাসিক দখলদারির ইতিহাস’ থাকায় বিএনপির সহযোগী সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলকে সন্ত্রাসবিরোধী ছাত্রঐক্যে নেওয়া হয়নি, হবেও না৷ আর বর্তমানে একটি ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধেই মূলত এই জোট গঠিত হওয়ায় তাঁদের নেওয়ার বিষয়টি অসম্ভব।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে জোটের সমন্বয়ক ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের (বাসদ) কেন্দ্রীয় সভাপতি আল কাদেরী, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় সভাপতি মাসুদ রানা ও বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীর কেন্দ্রীয় সভাপতি ইকবাল কবীর বক্তব্য দেন৷

উপস্থিত ছিলেন ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি মেহেদী হাসান, ছাত্র ফেডারেশনের (গণসংহতি আন্দোলন) কেন্দ্রীয় সভাপতি গোলাম মোস্তফা, ছাত্র ফেডারেশনের (বদরুদ্দীন উমর) কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল মাহমুদ, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক বিন ইয়ামিন মোল্লা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুনয়ন চাকমা, বিপ্লবী ছাত্র-যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি আতিফ অনীক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শামসুন নাহার হল সংসদের ভিপি শেখ তাসনীম আফরোজ প্রমুখ৷

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY