‘করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরিতে লাগতে পারে ১ বছর’

422
১১-দেশে-ছড়িয়ে-পড়েছে-চীনের-ভাইরাস-বাড়ছে-আতঙ্
ছবি: সংগৃহীত

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্ক:‌ দ্রুতভাবে ছড়াচ্ছে চীনের করোনা ভাইরাস। এ ভাইরাসের প্রতিরোধে প্রতিষেধক তৈরিতে ইতিমধ্যে কাজ শুরু করেছেন বিজ্ঞানীরা। তবে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন করোনা ভাইরাস প্রতিষেধক তৈরিতে তাদের আরো এক বছর সময় লাগতে পারে। খবর যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ডেইলি স্টারের।

এই বিষয়ে বিশ্বের বৃহৎ ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি জনসন এন্ড জনসনের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডক্টর পল স্টোফেলস জানায়, আরো পনের দিন আগে থেকে তারা প্রতিষেধক তৈরির কাজ শুরু করেছে। তিনি বলেন, আমি খুব চিন্তিত যে এটি বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করতে পারে। এজন্যই আমরা প্রায় দুই সপ্তাহ আগে থেকে কাজ শুরু করেছি। তবে এই প্রতিষেধক তৈরিতে প্রায় ১ বছর সময় লাগতে পারে। জানা গেছে, জনসন এবং জনসন ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিতে পাঁচটি দল করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরির কাজে নিয়োজিত রয়েছেন।

এর আগেও জিকা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসন এন্ড জনসন ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিটি ১ বছর সময় নিয়ে প্রতিষেধক তৈরি করেছিল।

গত ডিসেম্বর চীনের উহান শহরে করোনা ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০৬ জনে দাঁড়িয়েছে। এই ভাইরাসে চীনে এখন পর্যন্ত ৪ হাজারের অধিক মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। তবে চীনের বাইরে করোনা ভাইরাসে এখন পর্যন্ত কেউ মারা যাননি। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY