করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ‘পেশেন্ট জিরো’র সন্ধান চলছে

264
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম ব্যক্তিটির সন্ধান চলছে
ছবি: সংগৃহীত

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্ক:‌ চীনে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম ব্যক্তির সন্ধান এখনও চলছে। করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ আক্রান্ত প্রথম ব্যক্তিটিকে বলা হয় ‘পেশেন্ট জিরো’। নিংসন্দেহে তিনিই এ করোনাভাইরাস সংক্রমণের উৎস।

কিন্তু কে তিনি? চীনের কর্তৃপক্ষ আর বিশেষজ্ঞরা তাকে চিহ্নিত করতে অনুসন্ধান এখনও চালাচ্ছেন। যে কোনো একটা বিশেষ ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণজনিত রোগে আক্রান্ত প্রথম ব্যক্তিটিকে বলা হয় ‘পেশেন্ট জিরো।’

তাকে চিহ্নিত করা জরুরি এই জন্য যে, কেন কীভাবে এবং কোথায় এই সংক্রমণের সূচনা হয়েছিল, তা জানা সহজ হবে। সংক্রমণের হাত থেকে মানুষকে রক্ষা করা এবং ভবিষ্যতে এর প্রাদুর্ভাব ঠেকানো দু-কারণেই পেশেন্ট জিরোকে চিহ্নিত করা জরুরি।

চীনের কর্তৃপক্ষ বলছে, সেখানে প্রথম করোনাভাইরাস কেস ধরা পড়ে ৩১ ডিসেম্বর। চীনের হুবেইপ্রদেশের উহান শহরের একটি সামুদ্রিক খাবার ও পশুপাখির বাজারের সঙ্গে এর প্রথম সংক্রমণগুলোর সম্পর্ক আছে।

চীনে যে ৭৫ হাজারেরও বেশি লোকের দেহে এ সংক্রমণ ঘটেছে- তার ৮২ শতাংশই নিবন্ধিত হয়েছে এই হুবেই অঞ্চল থেকে। এ তথ্য জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির।

কিন্তু চীনা গবেষকদের এক জরিপ যা ল্যান্সেট সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়, তাতে বলা হয় কোভিড-১৯ ভাইরাসে সংক্রমণ চিহ্নিত হয় একজন লোকের দেহে ২০১৯ সালের ১ ডিসেম্বর।

সেই ব্যক্তিটির সঙ্গে উহান শহরের ওই বাজারের কোনো সম্পর্ক ছিল না। তবে এটি ঠিক যে, প্রথম দিকে যে ৪১ জন সংক্রমণের কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন- তার মধ্যে ২৭ জনই উহানের সেই বাজারের সংস্পর্শে এসেছিলেন।

এদিকে বাহরাইনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইরান থেকে আসা তাদের এক নাগরিকের করোনার লক্ষণ দেখা দিয়েছে। করোনায় আক্রান্ত ঐ ব্যক্তিকে বর্তমানে এক হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

কুয়েত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তাদের দেশে তিন জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। কুয়েত নিউজ এজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, আক্রান্ত তিনজনই সম্প্রতি ইরান ভ্রমণ করে।

ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আক্রান্ত প্রথম জন কুয়েতি, বয়স ৫৩ বছর। দ্বিতীয় জন সৌদি বাসিন্দা, বয়স ৬১ বছর। এবং তৃতীয় জনের রাস্ট্রপরিচয় পাওয়া যায়নি।

এছাড়া চীনে করোনাভাইরাসে রবিবার ১৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২,৫৯২ জনে দাঁড়ালো। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সোমবার এ তথ্য জানায়।

চীনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে আরও ৪০৯ জন। এখন পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭৭ হাজার ১ শ’ ৫০ জনে দাঁড়ালো। সূত্র: রয়টার্স, বিবিসি, আলজাজিরা।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY