তাইওয়ান: টানেলের ভেতরে ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে ৩৬ জন নিহত

42
দুর্ঘটনা-কবলিত ট্রেন থেকে যাত্রীরা বের হয়ে আসছেন।

দৈনিক আলাপ আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  তাইওয়ানে একটি টানেলের ভেতরে ট্রেন লাইন-চ্যুত হবার ঘটনায় অন্তত ৩৪ জন নিহত হয়েছেন এবং আরো ৭২ জন ভেতরে আটকা পড়েছেন।

তাইওয়ানের সেন্ট্রাল এমারজেন্সি অপারেশন সেন্টার জানিয়েছে, দুর্ঘটনায় মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত চারটি বগির ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করছে উদ্ধারকারীরা।

ট্রেনটি রাজধানী তাইপে থেকে তাইতুং শহরে যাচ্ছিল। এই ট্রেনটিতে বেশ কিছু পর্যটক ছিল।

ধারণা করা হচ্ছে, সকাল নয়টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, রক্ষণাবেক্ষণের একটি গাড়ি ট্রেন লাইনের উপরে চলে আসলে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, যেসব বগি ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি সেখান থেকে যাত্রীরা তাদের মালামাল নিয়ে বের হয়ে লাইনের পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন।

তাইওয়ানের একটি সংবাদমাধ্যমকে এক নারী জানান, “হঠাৎ করে একটি বিরাট ঝাঁকুনি হলো আর আমি পড়ে গেলাম।”

“আমরা জানালার কাঁচ ভেঙ্গে ট্রেন থেকে বের হয়ে ছাদের উপরে উঠে আসলাম। “

কর্তৃপক্ষ বলছে, পেছনের দুটো বগি সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

টানেল

ছবির ক্যাপশান,

টানেলের ভেতরে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

গত কয়েক দশকের মধ্যে এটি হচ্ছে তাইওয়ানের সবচেয়ে বড় ট্রেন দুর্ঘটনা।

সর্বশেষ ২০১৮ সালে তাইওয়ানে ট্রেন লাইন-চ্যুত হয়ে ১৮ জন নিহত হয়েছিল। এছাড়া ১৯৯১ সালে দুটো ট্রেনের সংঘর্ষে ৩০জন নিহত এবং ১১২জন আহত হয়েছিল।

এই ট্রেনে যাত্রীদের মধ্যে বেশিরভাগই টম্ব সুইপিং ফেস্টিভ্যালে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন। এ সময় তারা পরিবার, আত্মীয় কিংবা বন্ধু-বান্ধবের কবর দেখতে যান এবং সেখানে কিছু আনুষ্ঠানিকতা পালন করেন। মূলত, মৃতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জন্যই এই সময় অনেকে ভ্রমণ করেন।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, ট্রেনটির চালকও দুর্ঘটনায় মারা গেছেন।

তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ট্রেনের ভেতর আটকে পড়াদের উদ্ধার করা এক সবচেয়ে বড় অগ্রাধিকার।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY