সৌদি বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা, আহতদের মধ্যে তিনজন বাংলাদেশি

15

দৈনিক আলাপ আন্তর্জাতিক ডেস্ক:সৌদি আরবের কিং আবদুল্লাহ বিমানবন্দরে অন্তত দুটি ড্রোন হামলার খবর দিচ্ছে বার্তা সংস্থাগুলো, যাতে আহতদের মধ্যে অন্তত তিনজন বাংলাদেশি রয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।

দেশটিতে বহুসংখ্যক বাংলাদেশি অভিবাসী শ্রমিক রয়েছে, যাদের অনেকেই বিমানবন্দরগুলোতে নানা কাজে নিয়োজিত।

সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর জাযানে অবস্থিত এই বিমানবন্দরে প্রথম ড্রোন হামলাটি হয় শুক্রবার গভীর রাতে। পরের হামলাটি হয় শনিবার ভোরে।

জোটের একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম বলছে, প্রথম হামলাতে তিনজন বাংলাদেশি, ছয়জন সৌদি নাগরিক এবং একজন সুদানের নাগরিক আহত হন।

বিমানবন্দরের সামনের জানালা ভেঙ্গে গেছে বলে জানিয়েছেন ঐ মুখপাত্র।

বিষ্ফোরকবাহী দ্বিতীয় ড্রোনটিকে শনিবার সকালে চিহ্নিত করা হয়।

তবে এটির আঘাতে কোন হতাহত হয়েছে কীনা সেটা জানাতে পারেনি জোট।

রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে কিং আবদুল্লাহ বিমানবন্দরে কার্যক্রম এখন স্বাভাবিক আছে।

রয়টার্স বলছে, ইয়েমেনের বিদ্রোহী গোষ্ঠি হুতি নিয়মিত ড্রোন এবং ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে। তবে হুতি গ্রুপের কেউ এই হামলার দায় স্বীকার করেনি।

সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক এই জোট ২০১৫ সাল থেকে ইয়েমেনে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট আব্দরাবুহ মানসুর হাদির সমর্থনে ইরানের সমর্থনপুষ্ট হুতি গ্রুপের বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে।

জাযান এলাকাটি ইয়েমেন সীমান্তের কাছে।

এদিকে বার্তা সংস্থা এএফপি বলছে, শুক্রবারের হামলায় পাঁচজন আহত হবার খবর দিচ্ছে।

বার্তা সংস্থাটি বলছে, “একটি উড়ন্ত বস্তু কিং আবদুল্লাহ বিমানবন্দরে এসে পড়ে” এবং যারা আহত হয়েছেন তাদের আঘাত গুরুতর নয়।

ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিরুদ্ধে লড়াইরত হুতিরা সম্প্রতি সৌদি আরবের বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে বেশ কিছু হামলা চালিয়েছে।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, বুধবার আভা বিমানবন্দরে একটি বিষ্ফোরকবাহী ড্রোন হামলায় চারজন শ্রমিক আহত হয়।

তবে সৌদি জোটের বক্তব্য তাদের আঘাতও গুরুতর ছিল না।

৩১শে অগাস্ট একই বিমানবন্দরে আরো একটি ড্রোন হামলা হয়, যেখানে আটজন আহত হয় এবং একটি বেসামরিক বিমান ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলী পার্বত্য এলাকা আভা একটি জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্য।

সাম্প্রতিক হামলাগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়নি।

গত অগাস্ট থেকেই ইরানের সমর্থনপুষ্ট হুতি বিদ্রোহীরা সৌদি আরবে হামলার পরিমাণ বেশ বাড়িয়েছে।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY