আল-আকসায় ইসরায়েলি পুলিশ ও ফিলিস্তিনিদের সংঘর্ষে আহত ১৫২

24

দৈনিক আলাপ আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইসরায়েলের অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে পবিত্র আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে ইসরায়েলি পুলিশ ও ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষের এ ঘটনায় অন্তত ১৫২ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। পবিত্র রমজান মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার সকালে এ সংঘর্ষ হয়।  খবর এএফপি ও রয়টার্সের।

মসজিদুল আকসা বা বায়তুল মুকাদ্দাস সারা বিশ্বের মুসলিমদের কাছে তৃতীয় পবিত্রতম স্থান বলে বিবেচিত। আর ইহুদিদের কাছে এটি খ্যাত টেম্পল মাউন্ট নামে। তারাও এটিকে তাদের অন্যতম পবিত্র স্থান হিসেবে বিবেচনা করে থাকে। বছরের পর বছর চলতে থাকা ইসরায়েল-ফিলিস্তিন দ্বন্দ্বের মূলে রয়েছে এই পবিত্র মসজিদ।

ফিলিস্তিনি রেড ক্রিসেন্টের এক সদস্য ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ইসরায়েলি পুলিশের দাবি, পবিত্র আল–আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে পাথর ছুড়ছিল একদল মানুষ। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে আল–আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে প্রবেশ করে পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর রাবার বুলেট ছুড়েছে। ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীরাও ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করে।

গত বছর রমজান মাসেও আল–আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে ইসরায়েলি বাহিনী ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছিল। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে গাজার সশস্ত্র সংগঠন হামাসের ১১ দিন ধরে সংঘাত হয়েছে।

এ ধরনের হামলা ঠেকানোর প্রচেষ্টায় চলতি বছর রমজান শুরুর আগে আলোচনা জোরদার করেছিল ইসরায়েল ও জর্ডান। উল্লেখ্য, জেরুজালেমের পবিত্র স্থানগুলোর তদারক ও রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করে থাকে জর্ডান।

গত ২২ মার্চ থেকে ইসরায়েলে চারটি হামলায় ১৪ জন নিহত হয়েছেন। এ সময়ের মধ্যে ২১ জন ফিলিস্তিনি হত্যার শিকার হয়েছেন। এসব হামলার পর পশ্চিম তীরে অভিযান জোরদার করে ইসরায়েল। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার দিনের শুরুতে ইসরায়েলি বাহিনীর অভিযানে দুই ফিলিস্তিনি নিহত হন। আর আগের দিন বুধবার অপর তিন ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হয়।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY