রাজশাহীতে তরুণ গুলিবিদ্ধ, আহত ৬

148
অস্ত্রসহ আটক সবুজ।

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীতে পাল্টাপাল্টি হামলায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মোট ছয়জন আহত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে এক তরুণ গুলিবিদ্ধ হয়েছেন, গরম পানিতে ঝলসে দেওয়া হয়েছে একজনকে। আহত সবাইকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে, জুয়া খেলার ঘটনার জের ধরে দুই পক্ষের মধ্যে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

গুলিবিদ্ধ তরুণের নাম আশিক ইকবাল (২০)। তাঁর বাড়ি নওগাঁর মান্দা উপজেলার দেলুয়াবাড়ী গ্রামে। গরম পানিতে গা ঝলসে যাওয়া ব্যক্তির নাম মোয়াজ্জেম হোসেন (৩২)। তাঁর বাড়ি নগরের সুপুরা এলাকায়। মোয়াজ্জেমের ভাষ্য, একটি অনলাইনে প্রকাশিত জুয়া খেলাসংক্রান্ত খবর তিনি ফেসবুকের শেয়ার করেছিলেন। এ কারণে তাঁর ওপর এই হামলা হয়।

আহত ব্যক্তিদের সূত্রে জানা গেছে, ফেসবুকে জুয়া খেলার খবর শেয়ার করার কারণে বৃহস্পতিবার সকালে নগরের সপুরা এলাকায় জুয়াড়িরা মোয়াজ্জেম হোসেনকে (৩২) নির্যাতনের পর তাঁর শরীরে গরম পানি ঢেলে ঝলসে দেন। এ ঘটনার জেরে দুপুর ১২টার দিকে মোয়াজ্জেম হোসেনের সহযোগীরা নগরের রানিবাজার এলাকায় ‘জুয়াড়ি’ তারেক (৩০), শাওন (২৮) ও রিপনকে (২৪) পিটিয়ে আহত করেন। পরে তাঁদের উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, তারেককে পেটানোর খবর পেয়ে বেলা পৌনে একটার দিকে তাঁর ভাই সবুজ (২৮) দলবল নিয়ে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা চালানোর জন্য নগরে অলকার মোড়ে আসেন। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে মারধরের ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে সবুজ পালাতে গেলে প্রতিপক্ষের লোকজন তাঁকে ধরে ফেলেন। তখন সবুজ তাঁর কাছে থাকা পিস্তল দিয়ে তিনটি গুলি ছোড়েন। এতে একটি গুলি আশিক ইকবাল ওরফে অন্তরের পেটের নিচে বিদ্ধ হয়। এ ছাড়া রাস্তায় পড়ে গিয়ে আশিকের সহযোগী তুষার নামের আরেক ব্যক্তি আহত হন।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পিস্তলসহ সবুজকে (২৮) আটক করে থানায় নিয়ে যান। হাসপাতাল থেকে সবুজের ভাই তারেককে আটক করা হয়।

আহত মোয়াজ্জেম হোসেন বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন। তাঁর বাঁ হাত ও মুখের এক পাশ গরম পানিতে ঝলসে গেছে। তিনি বলেন, নগরের সপুরা এলাকায় অবস্থিত পানি উন্নয়ন বোর্ডের সামনে সুগন্ধা ছাত্রাবাসের দোতলায় নিয়মিত জুয়ার বোর্ড চলে। মাদকের কারবারও চলে। তারেক এতে নেতৃত্ব দেন। মোয়াজ্জেম বলেন, আগের দিন রাজশাহীর একটি অনলাইনে জুয়ার এ আসর নিয়ে একটি খবর প্রকাশিত হয়, যা তিনি ফেসবুকে শেয়ার করেন। সকালে তিনি বাড়ি থেকে সপুরা এলাকায় অবস্থিত পানি উন্নয়ন বোর্ডের সামনে গেলে ‘জুয়াড়ি’ রাজু (৩১), রিপন (৪২), বাবু (৩২) ও তারেক (৩০) মিলে তাঁকে মারধর করেন। একপর্যায়ে তারেক চায়ের দোকানের গরম পানি তাঁর গায়ে ছুড়ে মারেন। এতে গা ঝলসে গেলে তিনি এসে হাসপাতালে ভর্তি হন।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার ইফতে খায়ের আলম বলেন, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, জুয়ার খেলার ঘটনার জের ধরে হামলা ও গুলির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। পিস্তলসহ পুলিশ সবুজ নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে। পরে তারেক নামের আরও একজনকে আটক করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ অন্তরের শরীরের অস্ত্রোপচার করা হয়েছে।

গুলিবিদ্ধ তরুণ আশিক ইকবালের ফুফু সানজিদা আক্তার বিকেলে  বলেন, আশিককে ঢাকায় নেওয়ার চিন্তাভাবনা চলছে।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY