করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৫ বাংলাদেশির একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

183
সিঙ্গাপুরে করোনা আক্রান্ত বাংলাদেশির অবস্থা আশঙ্কাজনক
ছবি: সংগৃহীত

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্ক:‌ সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পাঁচ বাংলাদেশির মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনকে ফোন করে এ কথা জানান দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন পরে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের বলেন, করোনা আক্রান্ত পাঁচ বাংলাদেশি সিঙ্গাপুরে শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন। তাদের মধ্যে ৩৯ বছর বয়সী এক শ্রমিকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তিনি আগে থেকেই কিডনিসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত ছিলেন। তার নিউমোনিয়া হওয়ার পর পরীক্ষা করা হলে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়।

সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণান জানিয়েছেন, সিঙ্গাপুর তাকে টপ মেডিকেল সার্ভিস দিচ্ছে। তারা তাদের সাধ্যমতো চেষ্টা করছেন। তবে সকাল থেকে ওষুধ রেসপন্স করছে না। ১৩ দিন ধরে আইসিইউতে আছেন। এজন্য তারা শঙ্কিত।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণানের ফোন করার কথা জানিয়ে ড. মোমেন আরও বলেন, সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাস আক্রান্ত পাঁচ বাংলাদেশির চিকিৎসা চলছে। এ পাঁচজনের চিকিৎসা ব্যয় সিঙ্গাপুর সরকার বহন করছে।

‘সিঙ্গাপুরের চিকিৎসা ব্যবস্থা অনেক উন্নত। সেখানকার চিকিৎসার ওপর আমাদের আস্থা রয়েছে।’

বাংলাদেশিদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করায় ধন্যবাদ জানিয়ে সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে একথা বলেন আবদুল মোমেন। এসময় সিঙ্গাপুর ছাড়া পৃথিবীর আর কোথাও কোনো বাংলাদেশি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

রাজধানীর হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে ‘সেকেন্ড ব্রেইনস্টর্মিং সেশন অন কম্প্রিহেনসিভ রিফর্ম অব দ্য ওআইসি’ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, চীনে এখনও যারা আছেন, তাদের যাবতীয় সুযোগ সুবিধা দেয়া হচ্ছে। চীন মনে করছে, তাদের আরও কোয়ারেন্টাইনে থাকা দরকার, তাই বাংলাদেশও অপেক্ষা করছে।

এর আগে, অনুষ্ঠানে ওআইসির সংস্কার নিয়ে আলোচনার উদ্যোগ সব সমস্যার সমাধানে যথেষ্ট না, তবে পথচলায় গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন এ কে আব্দুল মোমেন।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরেই সর্বপ্রথম করোনাভাইরাসের প্রকোপ দেখা দেয়। পরে এটি পুরো চীনে এবং চীনের বাইরেও ছড়িয়ে পড়ে। চীনের বাইরে সিঙ্গাপুরেই সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY