২০ দলের ঐক্য অটুট রাখতে চায় বিএনপি, ১০০ আসন দাবি শরিকদের

280

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্ক:   জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসন বণ্টন নিয়ে মুখোমুখি অবস্থানে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। জোটের শরিক দলগুলো বিএনপির কাছে কমবেশি ১০০ আসন দাবি করবে বলে সূত্রে জানা যায়। এরই মধ্যে অর্ধশতাধিক আসনে বিএনপি ও জোটের নেতারা মুখোমুখি অবস্থানে আছে।

তবে জোটের সমন্বয়ক বলছেন, গণতন্ত্রের স্বার্থে সর্বোচ্চ ছাড় দেয়ার চেষ্টা করবে বিএনপি। আন্দোলনের পাশাপাশি ভোটের মাঠেও বিএনপির সঙ্গে জোটে আছে ১৯টি দল। নির্দলীয় সরকার না পাওয়ায় ২০১৪ সালে বিএনপির সঙ্গে নির্বাচন বর্জন করে দলগুলো। মহাজোট সরকারের সময় বিএনপির সুখ-দুঃখের সঙ্গীও ছিল জোটের দলগুলো।

জোটের মোট নয়টি দল নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত। এই তালিকায় আছে  বিএনপি, এলডিপি, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, বাংলাদেশ ন্যাপ, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, খেলাফত মজলিস ও মুসলিম লীগ।

জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন হাইকোর্ট অবৈধ ঘোষণা করায় বাতিল হয়েছে। অনিবন্ধিত দলের মধ্যে আছে জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর), ইসলামী ঐক্যজোটসহ (একাংশ) কয়েকটি দল। এই ১৯টি দল, প্রায় ১০০ আসনে প্রার্থী দিতে চায়। এর মধ্যে ৭০ থেকে ৮০টি আসন টার্গেট জামায়াত ইসলামীর প্রার্থীদের।

তবে বিএনপিকে অযথা চাপ না দিয়ে বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা আছে এমন আসনগুলো চাওয়ার কথা জানালেন এলডিপি প্রধান কর্নেল অলি আহমেদ।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে জোটের বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। তবে এই মুহূর্তে জোট নেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তিই আমাদের কাছে প্রধান বিষয়।তবে নির্বাচন ঘনিয়ে আসতে থাকায় আসন চূড়ান্ত করলে প্রচারে সুবিধা হতো বলে মনে করেন কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম।

তিনি জানান, নির্বাচন একেবারেই কাছে। আগে থেকে প্রস্তুতি না নিলে শেষ মুহূর্তে সংকট তৈরি হতে পারে। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান জানান, প্রাথমিক প্রস্তুতি নিয়ে রাখলেও এখনই আসন চূড়ান্ত করবেন না তারা। এখন তাদের প্রধান লক্ষ্য খালেদা জিয়ার মুক্তি। তিনি বলেন, গণতন্ত্রের স্বার্থে সর্বোচ্চ ছাড়া দেয়ার চেষ্টা করবে বিএনপি। পরিস্থিতি যাই হোক, ঐক্য অটুট রেখে সমঝোতার ভিত্তিতে নির্বাচনে অংশ নিতে চাই আমরা।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY