সুধাসদন থেকে নির্বাচনী কার্যক্রম চালাবেন শেখ হাসিনা

228

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্ক:‌ ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু করবে বুধবার (১২ ডিসেম্বর) থেকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন ও ফাতেহা পাঠের মাধ্যমে শুরু হবে নির্বাচনী প্রচারনার কাজ। দলের নির্বাচনী কার্যক্রম প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনের পরিবর্তে ধানমন্ডি ৫ নম্বরে নিজের বাড়ি ‘সুধাসদন’ থেকে পরিচালনা করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

বুধবার বিকালে টুঙ্গিপাড়া এবং কোটালীপাড়ায় পৃথক দুটি নির্বাচনী জনসভায় শেখ হাসিনা উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে নৌকায় ভোট চাইবেন। আর বৃহস্পতিবার থেকে নৌকার পক্ষে ভোট চাইতে কেন্দ্রীয় নেতাদের আটটি টিম আট বিভাগের জেলা-উপজেলা চষে বেড়াবেন।

এদিকে নির্বাচনী কাজে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন ‘গণভবন’ ব্যবহার করবেন না শেখ হাসিনা। আগামী ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত তিনি দলের যাবতীয় নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা করবেন ধানমন্ডি ৫ নম্বরে নিজের বাড়ি ‘সুধাসদন’ থেকে।

সুধাসদনে দলীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ, নীতিনির্ধারণী বৈঠক, ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জেলা নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী। নির্বাচনী কাজে সরকারি সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করবেন না প্রধানমন্ত্রী। দলের একাধিক দায়িত্বশীল নেতা বাংলাদেশ প্রতিদিনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘দলের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে আট বিভাগের জন্য ৮টি টিমের খসড়া তালিকা করা হয়েছে। দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তালিকা চূড়ান্ত করবেন। বুধবার (১২ ডিসেম্বর) থেকে আমাদের আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হচ্ছে।’

কেন্দ্রীয়ভাবে নির্বাচনী কাজগুলোর সমন্বয়ের দায়িত্বে রয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ ছাড়া নির্বাচনী কাজে বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এবার মনোনয়ন বঞ্চিত আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক ও আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনী কার্যক্রম সমন্বয়, নেতা-কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করতে পরশু থেকে সুধাসদনে নিয়মিত বসবেন। ইতিমধ্যে যাবতীয় প্রস্তুতি শেষ করা হয়েছে।

বিপ্লব বড়ুয়া জানান, নির্বাচনী প্রচারণায় প্রধানমন্ত্রী সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করবেন না। এজন্য কাল বুধবার সড়কপথেই টুঙ্গিপাড়ায় যাবেন এবং সড়কপথেই ফিরবেন।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY