ভারত থেকে জীবনের কালবেলায় কলমযোদ্ধা- সুমিতা বর্ধনের দুইটি কবিতা

786
ভারত থেকে জীবনের কালবেলায় কলমযোদ্ধা- সুমিতা বর্ধনের দুইটি কবিতা

ব্যর্থ প্রেমিক
সুমিতা বর্ধন

ছেলেটা প্রেমিক হতে চেয়েছিলো
ছেলেটা ভালোবাসার দিনে গোলাপ দিতে চেয়েছিলো ,
কিন্তু, যখনি সে তার ভালবাসাকে আহ্বান করতো
তখনি দূরের ঐ কালো অন্ধকারটা-
তাকে হাতছানি দিয়ে নিয়ে যেতো অন্ধকারের গহীন অতলে,
সেখানে অন্ধকারের সাথে সে মিলেমিশে একাকার হয়ে যেতো,
তখন তার মধ্যেকার প্রেমিক পুরুষটি আড়ালে গিয়ে তামাশা দেখতো আর মিটিমিটি হাসতো,
যখনি লাল গোলাপের দিকে সে হাত বাড়াতো তখনি
হাজারো গোলাপের কাঁটা তাকে ক্ষত বিক্ষত করে
উপহার দিত এক দুর্বিসহ নরক যন্ত্রনা,
সূর্য পশ্চিমে ঢলে পড়েছে
আজও ছেলেটি প্রেমিক হতে চায়
একটা গোলাপ দিতে চায়,
কিন্তু,আজও সে প্রেমিক হতে পারেনি,
পারেনি একটিও লাল গোলাপ হাতে নিতে।

ধর্ষিত ভালবাসা
সুমিতা বর্ধন

যে শহরে ভালবাসারা প্রতিনিয়ত ধর্ষিত হয়
সেটা আমার শহর
সেটা আমার গ্রাম
সেটা আমার ঘর।
যেখানে রাতবিরেত লাগে না,
সকাল সন্ধ্যা লাগে না।
প্রতিনিয়ত ভালবাসাদের দমবন্ধ করে
মারতে দেখেছি,মরতে দেখেছি।
দেখেছি মুখ আর মুখোশের খেলা
স্বার্থপরতার কড়াল গ্রাসে
বিধ্যস্থ হতে দেখেছি
কতো তোমাকে,কতো আমাকে।
এই শহরে ভালবাসারা ঘুমায় বেশি,জাগে কম
এই সমাজ দেখেছে ভালবাসার নপুংসক রূপ,
এই ঘর প্রতিনিয়ত দেখেছে
ভালবাসার নগ্ন রূপ আর অশ্রুশিক্ত নয়ন।
যে শহরে ভালবাসারা
প্রতিনিয়ত ধর্ষিত হয়।
সেটা আমার শহর
সেটা আমার গ্রাম

সেটা আমার ঘর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here