চেতনা ও মূল্যবোধের আলোয় আলোকিত কবি- নাসরিন জাহান মাধুরীর ভিন্ন মাত্রার কাব্যগ্রন্থ “ঘাসফড়িং জীবন” প্রকাশিত হলো অমর একুশে বইমেলা২০২২এ।

53
নাসরিন জাহান মাধুরীর ভিন্ন মাত্রার কাব্যগ্রন্থ “ঘাসফড়িং জীবন " প্রকাশিত হলো অমর একুশে বইমেলা - ২০২২ এ।

দৈনিক আলাপ সাহিত্য ডেস্ক : “ঘাসফড়িং জীবন” প্রকাশিত হলো অমর একুশে বইমেলা – ২০২২ এ। বইটি প্রকাশিত হয়েছে নোলক প্রকাশন থেকে। এটি লেখকের দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ। লিখাগুলোয় সমসাময়িক ভাবনা, দেশপ্রেম, প্রকৃতি, ভালোবাসা আর বেদনার মিশ্রণ রয়েছে। জীবন চলার পথে মানুষ নানা অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়। মনো জগতে তার ছাপ পড়ে ব্যাপক। তারই কিছু চেষ্টা করেছে লিখতে।
“ ঘাসফড়িং জীবন ” বইটি প্রকাশ করেছে একান্তই মায়ের উৎসাহে। তাই বইটি উৎসর্গ করেছে কবির মা তাইবুন্নাহার আহমেদকে। আর তাহাঁর প্রয়াত ভাই মাহবুব পিয়ালকে।
“ঘাসফড়িং জীবন” পাওয়া যাবে –
অমর একুশে বইমেলা – ২০২২ এ —
নোলক প্রকাশন
স্টল নং- ১৭১


২০১৯ এর একুশ গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ “মনপৌরের প্রহর” কাব্যগ্রন্থটি সৃজনশীল লেখনির আলোয় আলোকিত করেছেন কবি নাসরিন জাহান মাধুরী । মন এর ভেতর একটা জায়গা যেখানে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অনুভূতি আসে আর সেটার প্রকাশ “মনপৌরের প্রহর”

“মনপৌরের প্রহর”


রকমারিতে “ঘাসফড়িং জীবন ” ও “মনপৌরের প্রহর ” দুটি কাব্যগ্রন্থই পাওয়া যাবে –
শত ব্যস্ততার মাঝে থেকেও সাহিত্যের সকল শাখায় গভীর মনোনিবেশ করে যাচ্ছেন সতত। দেশ বিদেশের দৈনিক, সাপ্তাহিক, মাসিক পত্রিকা, অনলাইন মিডিয়া ও বিভিন্ন সংকলনে অনবরত লিখে যাচ্ছেন কবিতা,গল্প, ছড়া ।
কবির কথা – মায়ের উৎসাহে আসলে লিখি , বই প্রকাশ করেছি একান্তই মায়ের উৎসাহে। তাই বইটি উৎসর্গ করেছি আমার মা তাইবুন্নাহার আহমেদকে। আর আমার প্রয়াত ভাই মাহবুব পিয়ালকে। পিয়াল প্রেরণা না দিলে আমি হয়তো কখনো লিখতামই না।
শৈশবের অনেক স্মৃতিই আমায় তাড়িত করে। এতো সুন্দর শৈশব আমি খুব মিস করি, যেখানে আর ফেরা হয় না।
নতুন প্রজন্মের কাছে অনেক আশা। আমার দৃষ্টিতে এ প্রজন্মের রয়েছে প্রখর বুদ্ধিমত্তা। ওরা ওদের বুদ্ধিমত্তা সৃজনশীলতায় শাণিত করে গড়ে তুলবে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। তাদের তাই সঠিক পথনির্দেশনা দেয়ার দায়িত্ব আমাদের।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY