কখনো কখনো সরে যেতে নিজের আপন বলয় থেকে । কখনো সৃষ্টিকে গলা চেপে ধরতে । এ এমনতর কবিতা গতানুগতিক ধারা থেকে বের হয়ে ভিন্ন গতিকের লেখা রুমকি আনোয়ারের ” বহুদিন সখ্যতা নেই ”

370
“কেউ নেই তার” খুব মর্মষ্পর্ষ্পী একটা কবিতা যার প্রতিটি চরণ যেন বাস্তবতার কলমে লেখা
রুমকি আনোয়ার

বহুদিন সখ্যতা নেই শব্দে

                              রুমকি আনোয়ার

বহুদিন স্পর্শ নেই , যে স্পর্শে নীরবে বলতো বহু কথা
কবিতার সে স্নিগ্ধ করাঙ্গুল হারিয়ে গিয়েছে বলে
আমি আর শব্দে নেই
শুধু অক্ষর সাজায় নীরবতা ।
আমার সেই গাঙচিল স্বপ্ন গুলো
কোন এক বোবা সন্ধ্যেয় না জানা ভাটিতে ,
আমি প্রকাশ্যে করেছি চুম্বন মৃত্যুকে
আমার সব অক্ষরগুলো আমার কাছে রক্ত তোমাদের কাছে জল ।
এই বুকে প্রেম ছিল , ছিল নাবিক
সে নাবিকের বাঁশিতে সমুদ্রও একা হতে জানে –
আমার সে প্রেম নিয়ে আমি বালিকা ফুটেছিলাম থরে থরে
মরে গেছে প্রেম , মরে গেছে প্রেম , প্রেম জাগে কেবল কাঠে আর কড়াতে ।
আমার এ নির্বাসন স্বেচ্ছা কারাদন্ড জেনো
কষ্ট হচ্ছে স্বপ্নের জন্যে , শব্দের জন্যে যা দিয়ে অযুত নিযুত সংসার আমার
আজ চোখের কোমল আলো বাষ্প হয়ে উড়ে যায় –
বাঁধা পড়ে না নীল অশ্রুর রজ্জুতে জানি, প্রতিবন্ধী সময়ে ঈশ্বরও অন্ধ হয়

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY