কবি সঞ্জিত মণ্ডল এর কবিতা “ফতোয়া”

438

ফতোয়া

               সঞ্জিত মণ্ডল

(প্রতিভা সন্ধান কাব্য পরিষদ এর সাপ্তাহিক সেরা লেখা )

বেঁচে থাকা সুখ কখন ফুরিয়ে গেছে,
মৃত্যু শিয়রে কড়া নাড়ে সে তো জানি।
পরিযায়ী পাখি পথ হাঁটি ভুখা পেটে,
অনাহার আর অচেনা অসুখ সঙ্গী হয়েছে মানি।
খিদে চেপে চলি লঙ মার্চের পথে-
পেটেতে কখন খিদেটা গুলিয়ে ওঠে,
জানি পথে দেখা হবে যমদূত সাথে,
ভুখাপেটে পথ চলা জানি কি কঠিন।

কি করে যে কারা হঠাৎ ফতোয়া ঝাড়ে-
ঘোষণার ইট পাটকেল ছুড়ে মারে,
গরীবরা কতো পথেতেই মারা পড়ে,
পরিযায়ী যারা সব হারায় তারা পেটেতে আগুন জ্বলে।
দুর্দশা সে তো বন্ধ হবার নয়-
ক্রমে ক্রমে বেড়ে চলেছে দুঃসময়,
আগুপিছু ভেবে হলো না লক ডাউন,
কার ঘোষণায় কে মরে কোথায় কার চোখে নেই ঘুম।

যতবার দেখি ফতোয়ার নানা ছলে –
হঠাৎ সাঁড়াশি কতো গলা চেপে ধরে,
অসহায় লোক যাতনা ফাঁপরে পড়ে,
কতো প্রাণ গেলো, বলিদান হলো, ফতোয়ার কৌশলে।
কতো পরিযায়ী মৃত্যু মিছিলে চলে-
শুখা রুটি হাতে ট্রেনে কাটা পড়ে মরে,
সর্বহারারা সর্বনাশের পথেতেই ঢলে পড়ে,
বিবেচনা বোধ রাজার থাকতে নেই।
ফতোয়ার পর ফতোয়া চলেছে নাটকীয় ভঙ্গিতে
বিবেচনা বোধ তোলা থাকে সিন্দুকে,
দেশে ও বিদেশে কতো হাততালি পড়ে,
যার সব যায় অভিশাপ জানি কবরেও কথা বলে।।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here