“অসহায় বেড়িবাঁধ”কবিতাটি লিখেছেন ভারত থেকে কলমযোদ্ধা বিজিত গোস্বামী।

185
“অসহায় বেড়িবাঁধ”কবিতাটি লিখেছেন ভারত থেকে কলমযোদ্ধা বিজিত গোস্বামী।

অসহায় বেড়িবাঁধ

            বিজিত গোস্বামী

পৃথিবীর শেষ সীমানায় একবার দাঁড়াতেই হবে
নিস্তেজ শবেরা এখানেই স্তূপের ভেতর থেকে
কথা বলে; আমি শব হতে চাইনে, আমি বাঁচতে চেয়েছি।

লাশ বোঝাই গাড়িগুলোর গন্তব্য শ্মশানে নয়তো গেড়োস্থান
পলিথিনের ভেতর নির্জীব ঘুম; পৃথিবী বড় বোকা!
চোখের সামনে ভেসে উঠে আপনজনদের দেহ
প্রাণশূন্য যোগ বিয়োগ গুণ ভাগ পড়ে থাক আজ
আজ কেবল মৃত্যু হোক সব।

পৃথিবী আজ বড় অসহায়!
অগণিত মানুষ জানে না কি তার অপরাধ;কেন এ মৃত্যু!
ধনী গরীব , জাতপাত এসবের বালাই নেই মৃত্যুর ফরমান
সব তুচ্ছ নির্ভেজাল সত্য।

সুনসান নীরবতা নেমে আসে;কেবল সাইরেন সতর্কতা!
ঘরের ভেতরে সুপ্ত কান্না জানতে চায় এ মাহামারী কেন?
কি পাপে মানুষ আজ মরে,
কে দিল পৃথিবীর শ্বাসে এ জড়া;ব্যধির আতুর ঘর।

জোড়া কুড়ি এক ইতিহাস—সারা বিশ্ব মনে রাখে তারে
করেন্টাইন,কোভিড,স্যোসাল ডিস্টেনসি,সেনিটাইজার ওরা
মানুষের পরম বন্ধু আজ
হাসপাতাল নাম পাল্টে নতুন বিশেষণ–‘কোভিড সেন্টার’
পজেটিভ মানুষের ভীরে তটস্থ ডাক্তার,নার্স;এ মৃত্যু বন্ধ হবে কবে!
হয়তো সময়ের কথা ভেবেই উত্তর লেখা হবে—
পৃথিবী আজ শান্ত;যারা লড়াই করে হেরে গেল তাদের
জন্য এক মিনিট নিরবতা
দাঁড়াও একবার পাশে
বলো সগর্বে তোমরা আছো
আমাদের হৃদয়ে;আত্মার শান্তি কামনায়।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY