“কেউ নেই তার” খুব মর্মষ্পর্ষ্পী একটা কবিতা যার প্রতিটি চরণ যেন বাস্তবতার কলমে লেখা । ভাবতে হয় , ভাবায় আসলেই আমরা মানুষ কিনা ! আপনারাও রুমকি আনোয়ারের লেখা এ লেখা নিয়ে তাই ভাবুন ।

643
“কেউ নেই তার” খুব মর্মষ্পর্ষ্পী একটা কবিতা যার প্রতিটি চরণ যেন বাস্তবতার কলমে লেখা
রুমকি আনোয়ার

কেউ নেই তার

                    রুমকি আনোয়ার

কিছু রক্ত ,কিছু বমি হাতে পিঠে কিছু ছ্যাক
শত ছিন্ন হয়ে থাকা সালোয়ার ,কামিজ কি ছিল অপরাধ তার ?
কোন এক অসতর্ক মুহূর্তে ভাতটুকু কেবল জাও হয়ে গিয়েছিল ,
সুদে আসলে সমাজসেবিকা গৃহকর্ত্রী মিটিয়ে নিয়েছে তা ।
গ্রামের সরলাকিশোরী চার দেয়ালে বন্দী হয়ে কেবলি মাথা খুঁড়ে মরে ,
অসংলগ্ন ,অনাহুত প্রলাপ ,” বাজান আমারে লইয়া যাও, “
সময়ের প্রতিধ্বনি অন্তরভেদ করে না কারো
কেবল রাত্রির বুকে জমাট বাঁধে বিষন্ন অন্ধকার ।
তর্পা নামে অ্যালসেসিয়ান কুকুর তাকে পরিষ্কারে অঢেল শ্যাম্পু
নিজের চুলে জট বেঁধে যায় কে দেখে তা খুব দয়া হলে পাঁচ টাকার তেল ,
শখের বিড়াল ব্যানুনের অধিকার আছে সোফাসেটে গা এলিয়ে দেয়া
আর কাজের মেয়ে বলে কাছে ভিড়লে শুনতে হয়
তোর গায়ে দুর্গন্ধ কেন গোসল করিস না ?
চুরি করে একদিন শ্যাম্পু দিয়েছিল কুকুরের মত ঘ্রানশক্তি তাদের
বেদম মার খেতে হয়েছিল ।
ধান কি পেকেছে বাপ কি আসবে নিতে শুধু অপেক্ষার প্রহর গুনে ,
সেই কবে বাপের লগে যাত্রাপালায় গিয়েছিল ” নবাব সিরাজউদৌলা ”
শেষ ডায়ালগটুকু বড় সত্যি হয়ে বাজে আজ ” হায় ! অভাগা দেশ “,
জীবনের তাবৎ সত্য যেন এখানেই লুকিয়ে আজ ।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY