“আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য ” অসাধারণ এ কবিতা লিখেছেন ওপার বাংলার কবি কাঞ্চন রয়

629
“আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য ” অসাধারণ এ কবিতা লিখেছেন ওপার বাংলার কবি কাঞ্চন রয়

আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য

                                                       কাঞ্চন রয় 

আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য
দুহাতে নতুন ভোরের স্বপ্ন সাজিয়ে
পূজোর অর্ঘ্য অর্পণ করব বলে।

আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য
তুমি যেদিন হাসপাতাল থেকে বাড়ি
ফিরে বলবে, জানো, আজ একটিও করোনা রুগী ধরা পারেনি,
তোমাকে আর আতঙ্কের প্রহর গুনতে হবে না।
খেতে দাও আমাকে। আমার না খুব খিদে পেয়েছে।

আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য,
যেদিন তুমি বলবে, জান মা,
নার্সের কাজে আলাদা এক অনুভূতি আছে!

করোনায় আক্রান্ত রুগীরা সব ভাল হয়ে ফিরে যাবার সময় ওদের মুখে যে হাসিটা, মা, ও.. তুমি শত পূজো করেও ঠাকুরের মুখে দেখতে পাবে না!
দেরি করো না মা, আজ তারাতারি শুয়ে পরবো।

আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য,
যখন তুমি এসে বলবে,
শুনছ? ভয় কেটে গেছে, রাস্তায় রাস্তায় খবর করতে করতে আমি খুব ক্লান্ত।
চল, রাস্তার পাশে সেগুন গাছটার নিচে গিয়ে বসি,
চল, দু’দন্ড বিশ্রাম নিই প্রাণ খুলে শ্বাস নেই।

আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য,
যেদিন এসে তুমি ইউনিফর্ম খুলতে খুলতে বলবে, ওঃ, কি আনন্দই যে হচ্ছে,
আর ভিড় সামলাতে হবে না,চল, কাল মন্দিরে যাই,
অনেকদিন একসাথে পুজো দেওয়া হয়নি।

আমি অপেক্ষায় থাকব তোমার জন্য,
যেদিন পাড়ার মোড়ের চা দোকানে গিয়ে দাঁড়ালে ধোঁয়াওঠা কাপটা এগিয়ে দেবে বিশুদা।
স্কুলের বাসটি বাড়ির সামনে হর্ন দেবে।
ভোরে সব্জি বাজারের হাঁকডাক আর মুটে মুজুরের ব্যস্ততায় কৃষকের মুচকি হাসি একাকার হয়ে যাবে।

ট্রেন ধরার ব্যস্ততা আর অফিসের তাড়ায় অটোওয়ালাকে, আর একটু জোরে চালাও ভাই।
চা বাগানে পাতা তুলতে তুলতে ফুলমনির সাথে রিমজুসের কথা হবে চোখে চোখে।
ডুয়ার্সের লাটাগুড়ি আর মন্দারমণি, তিস্তা আর গঙ্গা, দার্জিলিং আর বকখালি সবাই গা ঘেঁষে বসে সুখদুঃখ ভাগ করে নিতে নিতে বলবে,
চল, এবার পূজোয় তাজমহল দেখে আসি।

আমি অপেক্ষায় থাকব…..
তোমার জন্য…….

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here