“ক্ষয়িত প্রস্তর ” কবিতাটি লিখেছেন ওপার বাংলার কলমযোদ্ধা রুনা দেব চৌধুরী

332
“ক্ষয়িত প্রস্তর ”
“ক্ষয়িত প্রস্তর ” কবিতাটি লিখেছেন ওপার বাংলার কলমযোদ্ধা রুনা দেব চৌধুরী

” ক্ষয়িত প্রস্তর ”

                        রুনা দেব চৌধুরী

ছোট্ট ছোট্ট নুড়ি পাথরের আঘাতে আঘাতে
জর্জরিত এক প্রস্তরখন্ড,
বহুযুগ ধরে রয়ে গেছে একইভাবে একই স্থানে ।
রয়ে গেছে বহু কৃতিত্বের সাক্ষী হয়ে,
রয়ে গেছে বহু ঘটনার নীরব দর্শক হয়ে ,
বয়ে গিয়েছে তার ই বুকের ওপর দিয়ে
প্রকৃতির নানান বিপর্যয় !!
ঝড়, ঝঞ্ঝা , ভূমিকম্প, অতিবৃষ্টি, অনাবৃষ্টি সব —
সবই সে আত্মস্থ করে নিয়েছিল
অবলীলাক্রমে—–
কিন্তু , আজ —
আজ যেন সে সময়ের ভারে ,
পরিস্থিতির ভারে
ক্লান্ত , শ্রান্ত ,বিধ্বস্ত, ভগ্নপ্রায়–
ভেতরের সেই কঠিন ক্ষমতাটা
নিঃশেষিত হয়ে আসছে
একটু একটু করে ।
নুড়ির আঘাতে ক্ষতবিক্ষত স্থানগুলি থেকে ঝরছে রক্ত ।
সেখানে তৈরি হচ্ছে এক বৃহৎ গহ্বর।
আর সেই গহ্বর পূর্ণ করতে
দানা বাঁধছে–
অভিমান , ব্যাথা , যন্ত্রনা , আবেগ , কষ্ট….
হয়ত একদিন এসব
জমতে জমতে ;
পূর্ণ হয়ে যাবে বৃহৎ গহ্বর !!
কালের নিয়মে নিঃশেষিত হয়ে যাবে
“প্রস্তর খন্ড”
অধিকার নেবে নতুন প্রজন্ম,
থাকবে না সেখানে কোনো
” শুন্যতা “

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY