চেতনাবোধের কবি-খাতুনে জান্নাত’র সূক্ষ্ম অনুভূতির কবিতা“মানুষ অচেনা মানুষের কাছে ”

204
খাতুনে জান্নাত’র সূক্ষ্ম অনুভূতির কবিতা“মানুষ অচেনা মানুষের কাছে ”

মানুষ অচেনা মানুষের কাছে
খাতুনে জান্নাত

……
আলোকেও আজকাল ভয় করে পুড়ে দেবেনা তো?
মানুষ মানুষকে ভাঙছে কেবল
শিশুর চারপাশে তুলে দিচ্ছে বিভেদ প্রাচীর।
অনাগত স্বপ্নে ওরা কি করে বাইবে আনন্দ তরী।
মাছির মতো ভনভন করছে ধর্মের ভিমরুল
হুল ফোটাবে, আগুন দেবে, আগলে রাখবে আলপথ।
পাতারা উড়বে, ফুলেরা হাসবে
শিশুর অলিন্দে নাচের উদ্যান।
ফসলের উড়নি আঁচল কোন পারের গান শোনাবে?
এত যে আঁধারের অচেতনবাদ।

ধানে ভরা হেমন্তের গানে আগুনের হলাহল
ভাসছে দুঃখের স্রোতে অগনন মানুষ
কোথাও ঘাপটি মেরে থাকে অসংগতি
মানুষের সাথে মানুষের বিভেদ
ধর্মের সাথে ধর্মের
গ্রন্থের সাথে গ্রন্থের
গ্রন্থির সংযোজন সুতো খুঁজছে কেউ কেউ,
কেউ কেউ গোপন ক্রন্দন,
সুশোভিত প্রকৃতির শোভায় অমানবীয় উচাটন।
কারো উল্লাসে বিধ্বস্ত কারো বসতি
বরাবরের মতোই কারো উল্লম্ফনে ধর্ষিত মা-বোন।

কেঁপে উঠে সহনশীল ধরিত্রী
মানুষ মানুষকে ঘৃণা করে
মানুষ গ্রন্থকে ঘৃণা করে
মানুষ দেবতাকে ঘৃণা করে
মানুষ দেবতাকে ভালোবাসে
মানুষ প্রার্থনা ভালোবাসে
মানুষ প্রার্থনাকে ঘৃণা করে
মানুষ ভালোবাসাকে ঘৃণা করে
মানুষ ভালোবাসে মানুষকে।

বলতে চায় ধরণী “থামাও ধর্ম ধর্ম খেলা”…
মানুষ জন্ম দিয়েছে সে তবে
কেন এত অচেনা অচেনা লাগে?

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here