আমেরিকা থেকে কাব্য ভারতী কবি-সাহানুকা হাসান শিখার জীবনমুখী কবিতা“কবিতার পোস্টমর্টেম”

291
সাহানুকা হাসান শিখার জীবনমুখী কবিতা “কবিতার পোস্টমর্টেম”

কবিতার পোস্টমর্টেম
সাহানুকা হাসান শিখা

ধারালো অস্ত্রের সাহায্য কেটে যাই,
এক একটি শব্দ এক একটি অক্ষর
লাইন বাই লাইন। কি আছে তার মাঝে!!
জুট ঝামেলা বিস্তর।
হঠাৎ অজানা শব্দে আতঁকে উঠে মন , কেঁপে উঠে হাত।
স্তব্ধ হয় কবিতার বুক।
এই বুঝি সে উঠবে জেগে,বলবে আমি তো মরেছি ধুকে ধুকে।
আরও বলবে, এই পৃথিবীর,
সকল পুরুষই কবি,কবিতা হলো নারী।
না আমি আর পারবো না,আর পারবো না ছুরি চালাতে,
আমাকে এখুনি হবে পালাতে।
আমার আঁখি ছুঁয়ে যায় কবিতার বুক
এক নারীর শবদেহ।
জীবিত কালের কতো যত্নের,সুন্দর
স্তনযুগল ছিন্ন বিচ্ছিন্ন প্রায়।
কেঁটে যাই উরুদেশ।
আ হা কি রক্তাক্ত এক মরুর দেশ সারা দেহ জুড়েই কবিতার জ্বালা আর যন্ত্রণা,
হাহাকার আর কান্না কোথাও নেই এতটুকু শান্তি,
এবার শুনছি বিকট আর্তনাদ,আমি কবিতা, আমি ধর্ষিতা,আমি নিচ্ছি মৃত্যুর স্বাদ।
শেষ হয় আমার পোস্টমর্মেট,
কবিতা হলো কবির আঁকা প্রট্রেট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here