“অনিরুদ্ধ”-এ এক সীমাহীন আঁধারের কথা বলে কাশীনাথ মালিকের কবিতা

338
“অনিরুদ্ধ”-এ এক সীমাহীন আঁধারের কথা বলে কাশীনাথ মালিকের কবিতা

অনিরুদ্ধ

                  কাশীনাথ মালিক

অনেক দিন পর তোর সাথে দেখা হলো
বৃষ্টি ঝড় ঝাঁপিয়ে এলো, শুষ্ক বেলাভূমির সমতলে
শান্ত থাকার কথা ছিল আমার, পারিনি-
এত বছরের অপেক্ষার,ইচ্ছে পুষিয়ে নিতে
মরা চোখ দুটি কেবল ,দূরপাল্লা ট্রেনের বগি
নিমেষে পৌঁছাতে চাই, গন্তব্যে
যেখানে তুইটা ভীষণ রকম একা একটি স্ট্রেশান ।
ভাঙা কাঁচের আয়নার খন্ড গুলো জুড়ে
চোখের সামনে সেই দিনের ভরা বসন্তের গান
কৃষ্ণচূড়া ফাঁক দিয়ে ,নেমে আসা অন্ধকারে
তোর চেনা গন্ধে মাতোয়ারা জোনাকির আলো।
তোর নরম ঠোঁটে যখন বৃষ্টি আসতো
সেই বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে, সময় পথ তারাদের মিটিমিটি চোখের ইতিহাস
আমি তো হারিয়েছি বহু কাল ।
এখন যে তোকে সোজাসুজি দেখবো
এমন স্পর্ধা আমার নেই,
তোর ঘর এখন পরিপাটি করে সাজানো গোছানো
পর্দা ফেলা দৃষ্টি এড়ানো সম্ভব ,সম্ভব নয় প্রেম-।
যদি ধরা পড়ে যায়, পুরোনো স্মৃতির চেনা রোদ যদি তোকে ভেজাতে চাই,
নোনা জলের সমুদ্র তোর এত দিনের ভুলে থাকা,যদি ভুল হয়ে দাঁড়ায়
নিজেকে আবার যদি নতুন করে চিনতে পারিস,।
সব বেদুইন হয়ে যাবে, ঘর সংসার স্বামী, এত যতনের ব্যস্ততা-
দিন বদলে গেছে, এখন তোর হাতে অন্য হাত
আমি কিন্তু একি জায়গায় দাঁড়িয়ে
ঝিঁ ঝিঁ পোকার ডাক ঝোড়ো হাওয়া
সাথে নিয়ে তোর চেনা গন্ধে
বেঁচে আছি
জীবিত লাশ হয়ে
আমি অনিরুদ্ধ ।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here