কবি বাহারউদ্দিন আহম্মেদ শ্রাবণ এর সম্পূর্ণ ভিন্ন আঙ্গিকের লিখা কবিতা “ভালবাসার অস্তিমজ্জা ”

430
কবি বাহারউদ্দিন আহম্মেদ শ্রাবণ এর সম্পূর্ণ ভিন্ন আঙ্গিকের লিখা কবিতা “ভালবাসার অস্তিমজ্জা ”

ভালবাসার অস্তিমজ্জা

                     বাহারউদ্দিন আহম্মেদ শ্রাবণ

কি যে মলিন চাহনি তোমার ঐ ডাগর ডাগর চোখ দুটিতে,
কি চাও তুমি আমার এই নিথর হয়ে যাওয়া দেহটাতে।

শুনো নীল পদ্ম,
আমি তোমাকে সুনিলের ১০৮ টি নীল পদ্ম এনে দেওয়ার সাহস আমার নেই,
তবে তোমাকে নীল শাড়িতে দেখার খুব প্রয়াস এই নিরন্তর মনের অভিলাষে।

তোমার অপলক দৃষ্টির সীমানায় যাকে ভাল লাগার বন্ধনে আবদ্ধ রেখেছো;
সে কি তবে জানে,
তুমি কি চাচ্ছ তার কাছ থেকে?

তবে শুনো নীল পদ্ম,
সে তোমাকে কিছুই দিতে পারবে না মন উজার করে;
দেওয়ার মত দিতে পারবে হয়তো সুমিষ্ট কিছু কথার ভান্ডার নতুবা কাব্যের সমাহার।

যদি তাই দেয় তোমাকে,
খুব যতন করে রেখে দিও তোমার মনের গহিনে
মনে করিও,
এটাই শ্রেষ্ঠ উপহার যা দিতে চায় সে তোমার তরে।

যদিবা দেখা না হয় তার সাথে,
তবে কল্পনার জগৎতে মনে রাখিও তারে।
যদিও সে হারিয়ে দূরে চলে যায় তোমার থেকে,
মনে রাখিও দেওয়ার মত যা ছিল তা তোমাকে আগেই বলে দিয়েছে।

শুনো নীল পদ্ম,
ভালবাসা একতরফা হওয়ার মধ্যে অন্য রকম
প্রশান্তি বিরাজমান,
কেননা তুমি ত তাকে ভালবাসার বন্ধনে বেধে রেখেছো যা আজো বহমান।

জানো নীল পদ্ম;
পাওয়ার জন্যে কিছু করার মধ্যে সুখ নেই,
তৃপ্তি ত কেবলী নিজেকে উজার করে অন্যের কল্যাণে বিলীয়ে দেওয়াটাই।

ভালবাসা সে এক বিশাল ব্যাপার
কেউ ভালবাসে মন দেখে কেউবা নিজ স্বার্থ হাছিলে।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY