“নবাঙ্কুর” কবিতাটি লিখেছেন ওপার বাংলার কলমযোদ্ধা সেক জাহেদ উল্লা

397
“নবাঙ্কুর” কবিতাটি লিখেছেন ওপার বাংলার কলমযোদ্ধা সেক জাহেদ উল্লা

নবাঙ্কুর

———সেক জাহেদ উল্লা

এক পশলা বৃষ্টির পরে , সবুজের উঁকিঝুঁকি ,
সারা প্রান্তর জুড়ে ।
নাম গোত্রহীন ক্ষুদ্র তারা , আঁতুড়ে তুলে মাথা ,
পরিচয় দেবে বছর ফিরে ।।
বীজ সুপ্ত ক্ষুদ্র অঙ্কুর , ভবিষ্যতের উচ্চ মহীরুহ ,
এখন মাটির কাছাকাছি ।
চিৎকার করে বলছে যেন , “ভেবনা মৃত মোরা ,
এইতো দেখো আছি” ।।
পায়ে মাড়িয়ে গেছিলে যাকে, না দেখার বাহানায় ,
সে তোমার সেবায় রত ।
সভ্যতার চিতাকাঠে পুড়লে তুমি , সে সদা রাজি ,
জুড়াতে তোমার জ্বালা ক্ষত ।।
জন্মেই ওরা দেখেছে , সারাটা আকাশে ,
লেগেছে রক্তের ছিটে ।
নীলিমা ফেরানোর সংকল্প মনে ,তারা অঙ্গীকারবদ্ধ ,
প্রয়োজনে নিজেরা যাবে মিটে ।।
হাজার বাধা পেরিয়ে তারা , দাঁড়াবে একদিন ,
তুলবে মাথা আকাশে ।
আমি তো বেশ শুনতে পাচ্ছি , তার পদধ্বনি ,
ছড়িয়ে পড়ছে বাতাসে ।।

Content Protection by DMCA.com

LEAVE A REPLY